default-image

কক্সবাজারের উখিয়ায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সদস্যদের সঙ্গে চোরাকারবারিদের গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। পরে ঘটনাস্থল থেকে চার লাখ ইয়াবা বড়ি উদ্ধার হলেও জড়িত কাউকে আটক করতে পারেনি বিজিবি।

গতকাল বুধবার রাত সাড়ে আটটার উখিয়ার রত্নাপালং ইউনিয়নের চাকবৈঠা চিকনপাতার বাগান নামের সীমান্ত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। উদ্ধার হওয়া ইয়াবার চালানটি মিয়ানমার সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে বাংলাদেশের কক্সবাজারের উখিয়ায় পাচার করা হচ্ছিল। উখিয়া সীমান্তে নিরাপত্তা দায়িত্বে থাকা কক্সবাজার-৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ প্রথম আলোকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজিবি সূত্র জানায়, কক্সবাজার-৩৪ বিজিবির রেজুপাড়া চৌকির সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চাকবৈঠা চিকনপাতার বাগানের নামের স্থানে অবস্থান নেন। তাঁরা বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে ৮-১০ জন চোরাকারবারিকে সীমান্ত এলাকা থেকে বাংলাদেশের দিকে আসতে দেখেন। বিজিবি টহল তাদের চ্যালেঞ্জ করলে চোরাকারবারিরা বিজিবিকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ শুরু করে। বিজিবিও পাল্টা ১৩ রাউন্ড গুলি চালায়। একপর্যায়ে চোরাকারবারিরা পাহাড়ি জঙ্গল দিয়ে দ্রুত মিয়ানমারের দিকে পালিয়ে যায়। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে লুঙ্গি মোড়ানো একটি ব্যাগের ভেতর থেকে চার লাখ ইয়াবা বড়ি পাওয়া যায়। এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। উদ্ধার হওয়া ইয়াবাগুলোর আনুমানিক মূল্য ১২ কোটি টাকা বলে জানিয়েছে বিজিবি।

৩৪ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল আলী হায়দার আজাদ আহমেদ বলেন, এ বছরের ১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত চোরাচালান ও মাদকবিরোধী অভিযান চালিয়ে এ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা বিভিন্ন স্থান থেকে ৪২ কোটি ৮৯ লাখ ৭৬ হাজার ৯০০ টাকা মূল্যের ১৪ লাখ ২৯ হাজার ৯২৩টি ইয়াবাসহ ১০৭ জনকে আটক করেছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন