বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এর আগে দলীয় নেতা-কর্মীরা ফেনী পৌরসভা চত্বরে স্থাপিত নির্বাচন কার্যালয়ে জমায়েত হন। সেখান থেকে প্রার্থীর সঙ্গে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে মিছিলযোগে জেলা নির্বাচন কার্যালয় চত্বরে যান। এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলী হায়দার, দপ্তর সম্পাদক এ কে শহীদ উল্যাহ খোন্দকার, ফেনী পৌরসভার মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আয়নুল কবির, ফেনী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি করিম উল্যাসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নাছির উদ্দিন পাটওয়ারী জানান, তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র জমাদানের শেষ দিন বিকেল ৫টা পর্যন্ত। শুধু শুসেন চন্দ্র শীল একক প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। এ ছাড়া এর আগে অপর কেউ মনোনয়নপত্র সংগ্রহও করেননি।
এদিকে ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামীকাল মঙ্গলবার প্রার্থিতা বাছাই এবং ১৯ সেপ্টেম্বর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাইতে সঠিক পাওয়া গেলে ওই দিন বিকেলেই একক প্রার্থীকে বিনা ভোটে জয়ী ঘোষণা করা হবে। আগামী ৭ অক্টোবর নির্বাচনের দিন ধার্য থাকলেও নির্বাচনের প্রয়োজন হবে না।

এদিকে নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পরই জেলা বিএনপির সদস্যসচিব আলাল উদ্দিন এ সরকারের অধীনে আর কোনো স্থানীয় সরকারের নির্বাচনে অংশ নেবে না বলে জানিয়েছিলেন। অন্য কোনো পদের পক্ষ থেকেও কেউ প্রার্থী হননি।

প্রসঙ্গত; গত ১৩ আগস্ট ফেনী সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুর রহমান মারা যান। ফলে উপনির্বাচন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন