বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাছটি বিক্রির জন্য বরগুনা মাছের বাজারে নেওয়া হয়। সেখানে মাছটি দেখতে উৎসুক জনতার ভিড় জমে। মৎস্য ব্যবসায়ী মিরাজ মুন্সি ২০ হাজার টাকায় জয়নাল ফরাজীর কাছ থেকে পাঙাশটি কিনে নেন। পরে তিনি মাছটি কেটে ভাগা দিয়ে বিক্রি করেন। প্রতি ভাগা মাছ দুই হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।

মৎস্য ব্যবসায়ী দেলোয়ার প্যাদা বলেন, অনেক দিন পর বড় পাঙাশ মাছ বাজারে আসে। মাছটি বেশ বড় হওয়ায় মাছের ছবি তুলে চলে যান। এককভাবে কেউ মাছটি না কেনায় কেটে ভাগ করে বিক্রি করা হয়। ভাগা বিক্রির জন্য বরগুনা শহরে মাইকিংও করা হয়।

বরগুনা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা বিশ্বজিৎ কুমার দেব বলেন, এ বছর জেলেদের জালে পর্যাপ্ত পরিমাণে মাছ ধরা পড়ছে। বিভিন্ন সময়ে সরকার মাছ ধরার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় এটা সম্ভব হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন