default-image

আত্মীয়স্বজনদের আগমনে বাড়িজুড়ে ছিল উৎসবের আমেজ। সাজানো হয়েছিল প্যান্ডেল। বিয়ের বাদ্য বাজানোর জন্য ব্যান্ডদলও এসে হাজির। স্বজনদের জন্য করা হয়েছে রান্না। রাত ১২টায় বরযাত্রী নিয়ে কনের বাড়িতে যাওয়ার জন্য চলছিল ধুমধাম প্রস্তুতি। এমন সময় জেনারেটর রাখার স্থানে বৈদ্যুতিক বাতির জন্য সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন বর সৌরভ চন্দ্র রায় (২২)।

পরিবারের লোকজন সৌরভ চন্দ্র রায়কে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এতে পাল্টে যায় পুরো বাড়ির চিত্র। তাৎক্ষণিক বিষাদে পরিণত হয় বিয়েবাড়ির আনন্দ। থেমে যায় বিয়ের সব আয়োজন। স্বজনদের আহাজারিতে ভারী হয়ে ওঠে আশপাশের পরিবেশ।

গতকাল শনিবার রাতে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ উপজেলার সুন্দরদিঘি ইউনিয়নের সরকারপাড়া এলাকায় ওই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। সৌরভ চন্দ্র রায় ওই এলাকার ফটেকশ্বর চন্দ্র রায়ের ছেলে। তিনি স্থানীয় কালীগঞ্জ বাজারে একটি ওয়ার্কশপের দোকানের কর্মচারী হিসেবে কাজ করতেন। তিন ভাইয়ের মধ্যে সৌরভ ছিলেন দ্বিতীয়।
পুলিশ ও সৌরভের পারিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সম্প্রতি সৌরভ চন্দ্র রায়ের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী ঠাকুরগাঁওয়ের সদর উপজেলার শুকানপুকুরী ইউনিয়নের কার্তিকতলা-স্বারদেবী এলাকার এক তরুণীর বিয়ে ঠিক হয়। গতকাল রাত ১২টায় বরযাত্রী নিয়ে কনের বাড়িতে বিয়ে করতে যাওয়ার কথা ছিল সৌরভের। রাত দুইটায় ছিল তাঁর বিয়ের লগ্ন।

বিজ্ঞাপন

আজ রোববার সৌরভের বাড়িতেই হওয়ার কথা ছিল বউভাত। এ জন্য বাড়িতে প্যান্ডেল সাজানোসহ বসানো হয়েছিল জেনারেটর। সন্ধ্যায় সবাই যখন বিয়েতে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন, ঠিক সে সময় সৌরভ নিজেই জেনারেটর বসানো স্থানটি আলোকিত করতে একটি বৈদ্যুতিক বাল্ব সংযোগ দিতে যান। এ সময় তিনি বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে অচেতন হয়ে পড়েন। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় পরিবারের লোকজন তাঁকে উদ্ধার করে দেবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

সৌরভের চাচাতো ভাই পরিমল চন্দ্র রায় বলেন, ‘বিয়ের দিনেই সৌরভের মৃত্যু হবে, আমরা ভাবতেও পারিনি। আমরা সবাই হতবাক হয়ে গেছি। যাঁকে নিয়ে এত আয়োজন, তাঁর মৃত্যুতেই সব শেষ হয়ে গেল। পরে তাঁর হবু শ্বশুরবাড়িতে খবর দেওয়া হয়। তারাও এমন মৃত্যুর খবর শুনে ভেঙে পড়ে। পরে রোববার ভোরে তাঁর সৎকারে কনেপক্ষের লোকজনও অংশ নেন।’

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বর সৌরভ চন্দ্রের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামাল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন