বিজ্ঞাপন

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আগের পরিচয়ের সূত্র ধরে হবিগঞ্জের শৈলজুরা গ্রামের মানিক মিয়ার বাড়িতে আসা–যাওয়া করতেন সজীব আহমেদ। তিনি গতকাল ওই বাড়িতে বেড়াতে এসে মানিক মিয়ার মেয়েকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। প্রস্তাবে রাজি হননি মেয়ের বড় বোনের স্বামী কাদির আহমেদ। এ নিয়ে দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এ সময় সজীব একটি লাঠি দিয়ে কাদিরের হাতে আঘাত করেন। তখন কাদির উত্তেজিত হয়ে সজীবকে ছুরিকাঘাত করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় সজীবকে হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যার জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন কাদিরকে আটক করে পুলিশে দেন।

হবিগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুক আলী বলেন, ঘটনাস্থল থেকে কাদিরকে আটক করা হয়েছে। সজীবের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হবিগঞ্জ ২৫০ শয্যার জেলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন