বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় তরুণীর বড় ভাই বাদী হয়ে ধর্ষণের অভিযোগে ওবায়দুলকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে শ্রীবরদী থানায় ধর্ষণের মামলা করেন। মামলার পর থেকে ওবায়দুল পলাতক।

শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, পুলিশ মামলাটি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছে। আসামি ওবায়দুলকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন