রাজশাহী মেডিকেল

বৃদ্ধার মৃত্যু নিয়ে হুলুস্থুল, ছেলে আটক

বিজ্ঞাপন
default-image

রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আজ বুধবার সকালে এক বৃদ্ধার (৬৫) মৃত্যুকে কেন্দ্র করে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। চিকিৎসকের গায়ে হাত তোলার অভিযোগে ওই নারীর ছেলেকে আটক করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, পারুল বেগম নামের এক রোগীকে আজ সকালে হাসপাতালের ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়। সকাল আটটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। তাঁর স্বামীর নাম ইসহাক আলী। বাড়ি নগরের টিকাপাড়া এলাকায়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মনন কান্তি দাস প্রথম আলোকে বলেন, রোগী মারা যাওয়ার পর তাঁর স্বজনেরা ওয়ার্ডের ভেতরে চিৎকার করছিলেন। তাঁরা কর্তব্যরত নার্সদের উদ্দেশে বাজে কথা বলছিলেন। এ সময় একজন চিকিৎসক তাঁদের বাইরে যেতে বলেন। তখন ওই রোগীর ছেলে রাকিবুল ইসলাম চিকিৎসকের গায়ে হাত তোলেন। উপস্থিত দুজন ইন্টার্ন চিকিৎসক ঠেকাতে যান। এ নিয়ে ওয়ার্ডের ভেতরে হুলুস্থুল পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।


মনন কান্তি আরও বলেন, খবর পেয়ে তাঁরা যখন ওয়ার্ডে আসেন, তখন ওয়ার্ডের দরজা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। তাঁদের কাউকে ভেতরে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। পুলিশ এসে রোগীর ছেলেকে ধরে নিয়ে যায়। পরে রোগীর ছেলে ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়েছেন। যেহেতু হাসপাতালের ভেতরে একটা ঘটনা ঘটেছে, কর্তৃপক্ষ এ ব্যাপারে একটা মামলা করবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তবে রাকিবুল ইসলামের চাচাতো ভাই হায়দার আলী দাবি করেন, চিকিৎসকেরাই তাঁর চাচাতো ভাইকে মেরেছেন। তারপর পুলিশে ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেখানে তাঁর বাবা গিয়েছিলেন। তাঁকেও চিকিৎসকেরা মারধর করেছেন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রাজপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন খান বেলা দুইটার দিকে প্রথম আলোকে বলেন, এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে। মামলা হলে রাকিবুল ইসলামকে ছাড়া যাবে না। তাঁকে আদালতে সোপর্দ করা হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন