বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী আজ কারখানাটির দুই হাজারের বেশি শ্রমিককে জুন মাসের বেতন দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন হাসেম ফুড লিমিটেডের জ্যেষ্ঠ ব্যবস্থাপক (অ্যাডমিন) এফ এম এ মুরাদ। প্রথম আলোকে তিনি বলেন, ১৫ জুলাই ওভারটাইম ও ১৬ জুলাই ঈদ বোনাস দেওয়া হবে। আহত শ্রমিকেরা আসতে না পারলে তাঁদের পরিচয়পত্র দিয়ে স্বজনেরা বেতন নিতে পারবেন। যাঁরা পরিচয়পত্র হারিয়েছেন বা পুড়ে গেছে, তাঁদের আইডি নম্বর বললে বেতন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

কর্তৃপক্ষ জানায়, আহত শ্রমিকেরা আসতে না পারলে তাঁদের পরিচয়পত্র দিয়ে স্বজনেরা বেতন নিতে পারবেন। যাঁরা পরিচয়পত্র হারিয়েছেন বা পুড়ে গেছে, তাঁদের আইডি নম্বর বললে বেতন দেওয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

এফ এম এ মুরাদ আরও বলেন, আজ বেলা একটার মধ্যেই বেতন পরিশোধের পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু সড়কে যানজটের কারণে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত বেতনের অর্থ নিয়ে ঢাকা কার্যালয়ের দলটি এসে পৌঁছাতে পারেনি।

এদিকে, বেতন দেওয়ার খবরে সকাল থেকে কারখানার সামনে শ্রমিকেরা ভিড় করতে থাকেন। সাইদ মিয়া নামের এক শ্রমিক বলেন, গতকাল সোমবার রাতে কারখানার এক বড় ভাইয়ের কাছ থেকে শুনে আজ সকালে বেতন নিতে এসেছেন।

গত বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের কর্ণগোপ এলাকায় হাসেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডের কারখানায় ভয়াবহ আগুন লাগে। শুক্রবার দুপুরের পর ছয়তলা ভবনটিতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বৃহস্পতিবার রাতে অগ্নিকাণ্ডের সময় ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে তিনজন মারা যান। এ ছাড়া শুক্রবার পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিস ৪৯ জনের লাশ উদ্ধার করে। এ নিয়ে ওই ভয়াবহ দুর্ঘটনায় অন্তত ৫২ জনের মৃত্যুর খবর জানা গেছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন