default-image

কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় প্যান্টের বেল্টের ভেতরে করে পাচারের সময় সাতটি সোনার বারসহ আবদুল গনি (৪৬) নামের এক পাচারকারীকে আটক করেছে বিজিবি। তিনি চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার আফজালনগরের ছয়দাহাট ও বর্তমানে টেকনাফ পৌরসভার লামার বাজার এলাকার বাসিন্দা।
আজ রোববার সকালে কক্সবাজার-টেকনাফ আঞ্চলিক সড়কের হোয়াইক্যং বিজিবি তল্লাশিচৌকি এলাকায় সোনার বারসহ আবদুল গনিকে আটক করা হয়। এ তথ্য প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন টেকনাফ ২ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান।
মোহাম্মদ ফয়সল হাসান খান বলেন, রোববার সকাল সাড়ে আটটার দিকে কক্সবাজারগামী একটি যাত্রীবাহী বাস হোয়াইক্যং বিজিবি তল্লাশিচৌকি এলাকায় পৌঁছালে প্রতিদিনের মতো চোরাচালানবিরোধী তল্লাশি চালানো হয়। এ সময় এক যাত্রীর আচরণে সন্দেহ হওয়ায় তাঁকে তল্লাশি চালালে ওই যাত্রীর প্যান্টের বেল্টের ভেতরে থাকা সাতটি সোনার বার পাওয়া যায়। কোনো ধরনের বৈধ কাগজপত্র না থাকায় সোনা পাচারের অভিযোগে ওই যাত্রীকে আটক করা হয়। ৯৯ ভরি ১১ আনা ওজনের ৬৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা মূল্যের সোনার বারগুলো উদ্ধার করা হয়।
বিজিবির অধিনায়ক বলেন, আটক ব্যক্তিকে টেকনাফ থানা-পুলিশে সোপর্দ করে মামলা করা হয় ও উদ্ধার করা সোনার বারগুলো কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের ট্রেজারি শাখায় জমা দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0