বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাসুদেব পাল জানান, পারিবারিকভাবে প্রায় ৭৫ বছর ধরে এখানে প্রতিমা তৈরি করে আসছেন তাঁরা। তিনি এখানে আছেন ৪৫ বছর ধরে। কখনো কারও সঙ্গে কোনো ধরনের ঝামেলা বা ঝগড়া হয়নি।

এ বিষয়ে বোয়ালখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবদুল করিম প্রথম আলোকে বলেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তবে ভাঙচুরের বিষয়টি উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে মনে হয়নি। ইচ্ছাকৃতভাবে করা হলে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ আরও বেশি হতো। তারপরও বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। আর মৃৎশিল্পীকে অভিযোগ জমা দিতে বলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন