default-image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার তুষখালী গ্রামে উত্তম কর্মকার (৫২) নামের এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে গুলি করে স্বর্ণ ও টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় ডাকাত জুয়েল মৃধাকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। শনিবার রাতে উপজেলার সোনাখালী বাজার এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

জুয়েল মৃধা উপজেলার দক্ষিণ সোনাখালী গ্রামের ইউনুস মৃধার ছেলে। তাঁর বিরুদ্ধে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন থানায় ডাকাতি, ছিনতাই ও অস্ত্র আইনে ১২টি মামলা রয়েছে।
মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ জেড এম মাসুদুজ্জামান জানান, গত মঙ্গলবার রাত সোয়া আটটার দিকে উপজেলার তুষখালী গ্রামে স্বর্ণ ব্যবসায়ী উত্তম কর্মকারকে গুলি করে ৩ ভরি স্বর্ণ ও ৩৫ হাজার টাকা ছিনতাই করে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় পুলিশ উপজেলার তুষখালী গ্রামের মামুন (২৫) নামের এক তরুণকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর তিনি বেশ কিছু তথ্য দেন। এরপর এ ঘটনায় জুয়েলকে গ্রেপ্তার করা হয়। জুয়েল ছিনতাইয়ের মাস্টারমাইন্ড। তাঁর বিরুদ্ধে ১২টি মামলা রয়েছে। রোববার বিকেলে জুয়েলকে মঠবাড়িয়া সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হয়। পাশাপাশি তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করা হয়।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার রাতে তুষখালী বাজারের দোকান বন্ধ করে উত্তম কর্মকার তাঁর স্ত্রীকে নিয়ে রিকশায় করে বাড়ি ফিরছিলেন। উত্তম কর্মকার বাড়ির সামনে পৌঁছালে দু–তিনজন যুবক ব্যাগে থাকা ৩ ভরি স্বর্ণ ও ৩৫ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেন। এ সময় উত্তম কর্মকার তাঁদের কাছ থেকে ব্যাগ উদ্ধারের চেষ্টা করলে তাঁকে লক্ষ্য করে পিস্তল দিয়ে গুলি ছোড়েন তাঁরা। এতে তাঁর বাঁ পায়ে গুলিবিদ্ধ হন। উত্তম কর্মকার বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় উত্তম কর্মকারের মেয়ে সম্পা রানী কর্মকার বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে স্থানীয় থানায় মামলা করেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন