বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সমাবেশস্থল ফুলবাড়িয়া কনভেনশন সেন্টারের সামনে দায়িত্বে থাকা সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) সোহরাব হাসান প্রথম আলোকে বলেন, শহরের ৫৬টি স্থানে ৫১০ জন পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার বিএনপির চার নেতাকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে হেফাজতে নিয়েছিল পুলিশ। তবে আজ পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তাঁদের আটক করা হয়েছে।
জানতে চাইলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিএনপির ওই চার নেতাকে আটক করেছে পুলিশ। তবে তাঁদের এখনো গ্রেপ্তার দেখানো হয়নি।

ওই চারজন হলেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান, জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভা বিএনপির সদস্যসচিব মো. মিজানুর রহমান।

জেলা প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার জন্য বিদেশ পাঠানোর দাবিতে আজ বেলা দুইটার দিকে ফুলবাড়িয়া কনভেনশন সেন্টারের সামনে সমাবেশ ডাকে দলটি। একই স্থানে বেলা তিনটায় ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, মুজিব বর্ষ, বিজয়ের সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ছাত্রসমাবেশের ডাক দেওয়া হয়। এতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতির আশঙ্কায় সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেন জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান।

শুক্রবার সন্ধ্যায় জেলা প্রশাসক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, আজ সকাল ৬টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত ফুলবাড়িয়া কনভেনশন সেন্টার, সেন্টারসংলগ্ন খালি জায়গা এবং পুরো পৌর এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে। এ সময় কোনো ব্যক্তি বা সংগঠন বা রাজনৈতিক দল গণজমায়েত, সভা, সমাবেশ, মিছিল, বিক্ষোভ-মিছিল, র‌্যালি, শোভাযাত্রা ইত্যাদি কার্যক্রম করতে পারবে না। যেকোনো ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনকে কেন্দ্র করে চারজনের বেশি ব্যক্তি জমায়েত হতে পারবে না।

জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও সাবেক সভাপতি হাফিজুর রহমান মোল্লা প্রথম আলোকে বলেন, জেলা বিএনপির আহ্বায়কসহ চারজনকে পুলিশ আটক করেছে। জেলা প্রশাসন পৌর শহরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে। তবে কোথাও না কোথাও কর্মসূচি পালন করা হবে। গত ডিসেম্বরেই সমাবেশের অনুমতি চেয়ে জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের কাছে লিখিত দেওয়া হয়েছিল। তখন পুলিশের পক্ষ থেকে মৌখিকভাবে অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

এদিকে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। বেঙ্গল সরকারি কলেজে স্নাতকের পরীক্ষা চলছে। দুপুরে আধা ঘণ্টার বিরতি আছে। সেখানেই ছাত্রসমাবেশের বিষয়ে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে আমরা কথা বলব।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন