default-image

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মহাসড়ক ধসের অভিযোগে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাসহ তিন ঠিকাদারকে আটক করা হয়েছে। আজ সোমবার বিকেলে তাঁদের আটক করে পুলিশ।

আটক তিনজন হলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর উপজেলার বাসুদেব গ্রামের বাসিন্দা আবু নাহিদ সোহাগ (৩৮), কোড্ডা গ্রামের শানু খলিফা (৪৫) ও আখাউড়া পৌরসভার হাসান খলিফা (৩২)।

উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ সূত্র জানায়, সোমবার আখাউড়া পৌর এলাকার তিতাস রেলসেতুর পূর্ব পাশে আখাউড়া-আগরতলা আন্তর্জাতিক মহাসড়ক ও ঢাকা-চট্রগ্রাম-সিলেট রেলপথের মাঝখানে তিতাস নদ থেকে অবৈধভাবে খননযন্ত্রের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করছিলেন ওই তিন ঠিকাদার। সেই বালু আখাউড়া–আগরতলা আন্তর্জাতিক মহাসড়কের পাশে রেলওয়ের জায়গায় নিয়ে রাখেন তাঁরা। এতে তিতাস নদের ওপর থাকা সেতুর সামনের ডান দিকের মহাসড়কের ১২০ ফুট অংশ ধসে তিতাস নদে পড়ে যায়। সেখানে বালু রাখার কারণে এই ধসের ঘটনা ঘটেছে। ধসের পর থেকে ঝুঁকি নিয়ে মহাসড়কের এক পাশ দিয়ে যানবহন চলছে।

সন্ধ্যা সাতটার দিকে আখাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রসুল আহমেদ নিজামী প্রথম আলোকে বলেন, মহাসড়কের পাশে অবৈধভাবে বালু রাখায় সড়ক ধসে তিতাস নদে পড়ে গেছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নির্দেশে তিনজনকে আটক করা হয়েছে।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাহমিনা আক্তার প্রথম আলোকে বলেন, তিতাস নদ থেকে খনন করে রেলের জায়গায় অবৈধভাবে তাঁরা বালু রেখেছিলেন। বৃষ্টির পানি এবং বালুর পানি সরে রাস্তার একটি অংশ ধসে পড়েছে। এ জন্য তাঁদের আটক করে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। সড়ক ও জনপথ (সওজ) কর্তৃপক্ষ রাস্তাটি মেরামতের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নিচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0