জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) পানির হ্রাস-বৃদ্ধির তথ্য ছক সূত্রে জানা গেছে, মেঘনা নদীতে বিপৎসীমা ৫ দশমিক ৮০ মিটার এবং বর্তমানে পানির স্তর ৪ দশমিক ৮৫ মিটার। পাঁচ দিন আগে রোববার এখানে পানি ছিল ৪ দশমিক ৬৬ মিটার। তিতাস নদের এন্ডারসন খালে পানির বিপৎসীমা ৫ দশমিক শূন্য ৫ মিটার। সেখানে বতর্মানে পানি আছে ৫ দশমিক ৩৪ মিটারে পানি প্রবাহিত হচ্ছে, যা বিপৎসীমার ২৯ সেন্টিমিটার ওপরে। রোববার এখানে পানি ছিল ৪ দশমিক ৪২ মিটার।

গোকর্ণঘাট অংশে পানির বিপৎসীমা ৫ দশমিক ৩৩ মিটার, বর্তমানে পানি আছে ৪ দশমিক ৯৫ মিটার এবং রোববার ছিল ৪ দশমিক ৩৮ মিটার। তিতাসের নবীনগর অংশে পানির বিপৎসীমার নিচে রয়েছে। তিতাসের আজবপুর অংশে বর্তমানে পানি আছে ৫ দশমিক ৫৫ মিটার, যা বিপৎসীমার ৯ সেন্টিমিটার ওপরে। রোববার এখানে পানি ছিল ৫ দশমিক শূন্য ৫ মিটার।

তিতাস নদের আখাউড়া অংশে পানি বিপৎসীমার নিচে আছে। নদের গঙ্গাসাগর অংশে পানির বিপৎসীমা ৬ দশমিক ১০ মিটার। বর্তমানে পানি আছে ৫ দশমিক ৯২ মিটার। রোববার পানি ছিল ৬ দশমিক ৩৫ মিটার।

জেলা পাউবোর উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মঈনুল হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় তিতাস নদের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নদের বিভিন্ন পয়েন্টে পানি ২ থেকে ২৯ সেন্টিমিটার পর্যন্ত বেড়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন