বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

স্থানীয় লোকজন, পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকালে ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয় অন্তর। সকাল নয়টার দিকে শহরের কাউতলী এলাকা অতিক্রম করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা জজ আদালতের সামনের কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের দিকে যায়। সে সময় ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ব্রাহ্মণবাড়িয়ামুখী উত্তরা পরিবহনের একটি বাস অটোরিকশাকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশাচালক অন্তর নিহত হয়।

দুর্ঘটনার পর বাসটি সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে কাউতলীর পরের এলাকা পৌর শহরের ভাদুঘর বাস টার্মিনালে চলে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে গিয়ে অন্তরের লাশ ও দুমড়েমুচড়ে যাওয়া অটোরিকশা রাস্তার পশ্চিম পাশে নিয়ে রাখেন। প্রথমে খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ ও পরে সরাইল খাঁটিহাতা হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অটোরিকশাচালক অন্তরের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।


সরাইল খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নজরুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, ‘লোকমুখে শুনে বাসটি শনাক্তের জন্য জেলার ভাদুঘর বাস টার্মিনালে আমরা গিয়েছিলাম। বাসটি শনাক্ত করতে পেরেছি। কিন্তু বাসের চালক ও সহযোগীকে পাওয়া যায়নি। তবে তাঁদের আটকের চেষ্টা চলছে। আর বাসটি জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি মো. সেলিমের জিম্মায় ভাদুঘর বাস টার্মিনালে রাখা হয়েছে। বাসটি সেখান থেকে নিয়ে আসা হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন