রেলসচিব সেলিম রেজা বলেন, ‘ করোনা পরিস্থিতির কারণে সারা বিশ্বের মতো আমরাও অনেকটা পিছিয়ে পড়েছি। দ্রুতই আখাউড়া -আগরতলা রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষ করার চেষ্টা চলছে। আর ২০২৩ সালের মধ্যে আখাউড়া-লাকসাম ডাবল লাইন রেলপথ নির্মাণসহ সকল প্রকল্পের কাজ আমরা শেষ করতে পারব বলে আশা করছি।’

রেলসচিব আরও বলেন, ‘রেল সম্পূর্ণ একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান। আমাদের সরকারি যে বিধি-বিধান আছে, সেই অনুযায়ী চলতে হয়। আমাদের স্বাস্থ্যের দিকটি আগে ভাবতে হবে। আপনারা জানেন, করোনার কারণে সারা বিশ্বে কী অবস্থা হয়েছে। ট্রেনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে একটি আসন ফাঁকা রেখে আরেকটা আসনে বসে যাত্রীদের যাতায়াত করতে হয়। কেউ যদি নিয়ম না মানে, তাহলে রেলের প্রচলিত আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ ব্যাপারে মাঠ কর্মকর্তাদের স্পষ্ট নির্দেশনা দেওয়া আছে। করোনার এই সময়ে অন্য যেকোনো মাধ্যমের চেয়ে রেল বিভাগ অনেক ভালোভাবে নিয়মকানুন মেনে চলছে।’

আখাউড়ায় রেলসচিবের সঙ্গে চট্টগ্রাম রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (পূর্ব) জাহাঙ্গীর আলম, রেলওয়ের ঢাকা বিভাগীয় ব্যবস্থাপক সাদেকুর রহমান, ডিটিও মো. খায়রুল কবির, ডিসিও মো. সৈকত জামিল, আখাউড়া-আগরতলা রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের প্রধান প্রকৌশলী সুভক্ত গিল, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইফুল ইসলাম, রেলস্টেশন সুপার মো. কামরুল হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।