বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন মহিউজ্জামানের স্ত্রী চিকিৎসক মাইশা আনজুম চৌধুরী (২৬)। চিকিৎসক মাইশা পৌর এলাকার শাহপাড়া মহল্লার মাইদুল হক চৌধুরীর মেয়ে। এ ঘটনায় পৌর এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় মহিউজ্জামান মোটরসাইকেলে স্ত্রীকে নিয়ে বেড়া পৌর এলাকার নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। সন্ধ্যা ৬টার দিকে ঢাকা-পাবনা মহাসড়কের চাকলায় একটি শ্যালো ইঞ্জিনচালিত নছিমনের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হলে দুজনই মারাত্মক আহত হন। এলাকাবাসী মহিউজ্জামানকে উদ্ধার করে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ফাতেমাতুজ জান্নাত বলেন, মৃত অবস্থায় মহিউজ্জামানকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হয়। অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় মাইশাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে না এনে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র নিয়ে যাওয়া হয় বলে তিনি জানতে পেরেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মহিউজ্জামানের বড় ভাই শুভ পানি উন্নয়ন বোর্ডের প্রকৌশলী ছিলেন। বছরখানেক আগে ঝিনাইদহে ব্যক্তিগত গাড়িতে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনায় মারা যান তিনি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন