বিজ্ঞাপন

নিহত শহিদ শেখের ভাইয়ের ছেলে আশিকুর রহমান বলেন, তাঁর চাচা শহিদ শেখ ও রফিকুল ইসলাম গরুর ব্যবসা করতেন। আজ সকালে তাঁরা দুজনসহ তিন গরুর ব্যবসায়ী একটি ইঞ্জিনচালিত ভটভটিতে করে চারটি গরু নিয়ে উপজেলার মরিচা হাটে যাচ্ছিলেন। সকাল ১০টার দিকে ভটভটিটি উপজেলার তালতলা মাইলপোস্ট রেলক্রসিংয়ে উঠে পড়ার পর ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়। এ সময় খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চিলাহাটিগামী রূপসা এক্সপ্রেস নামের ট্রেনটি ভটভটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ভটভটিটি দুমড়েমুচড়ে যায় এবং কিছু দূরে একটা ডোবার মধ্যে পড়ে যায়। ভটভটিতে থাকা দুটি গরু ঘটনাস্থলেই মারা যায়। গুরুতর আহত হন তাঁরা তিনজন। স্থানীয় লোকজন তাঁদের উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রফিকুল ইসলাম মারা যান। আর খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর শহিদ শেখ মারা যান। আহত অপর গরু ব্যবসায়ী ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া রেলস্টেশনের মাস্টার বুলবুল আহম্মেদ বলেন, তালতলা রেলক্রসিংটি অবৈধ। ওই রেলক্রসিংয়ে গরুবোঝাই ভটভটির সঙ্গে আন্তনগর রূপসা ট্রেনের ধাক্কায় দুজন গরু ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। এ সময় দুটি গরু মারা গেছে।

দুর্ঘটনায় দুই গরু ব্যবসায়ী ও দুই গরু মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর রেলওয়ে পুলিশ (জিআরপি) ফাঁড়ির উপপরিদর্শক (এসআই) তারিকুল ইসলাম।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন