বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কয়েক ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থী ও তাঁদের অভিভাবকদের সঙ্গে কথা হলে তাঁরা বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার ফল দেওয়া। মেডিকেল কলেজে ভর্তির কারণে শিক্ষার্থীরা আর এখানে পরীক্ষা দিতে আসেননি। এ ছাড়া জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ বছর ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের আবাসিক হলে থাকতে দিচ্ছে না। ফলে আবাসন অনিশ্চয়তার আশঙ্কায় ভর্তি-ইচ্ছুকেরা আসেননি।

রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক তপন কুমার সাহা বলেন, অন্যান্যবারের চেয়ে এবার উপস্থিতি কমই মনে হচ্ছে। গুচ্ছের ভর্তি পরীক্ষা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল ও বুয়েটে ভর্তি হওয়ার জন্য অনেক পরীক্ষার্থী দিতে আসেননি বলে মনে হয়।

অন্যদিকে পরীক্ষার প্রশ্ন নিয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন মত। সকাল ৯টা থেকে বেলা ১টা পর্যন্ত ৩টি পালায় পরীক্ষায় প্রায় ২০ হাজার ভর্তি-ইচ্ছুক পরীক্ষার্থী অংশ নিয়েছেন। এসব ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীদের মধ্যে অন্তত ২৫ জনের সঙ্গে কথা বলেছেন এই প্রতিবেদক। তাঁদের মধ্যে ১৫ জন প্রথম পালায় পরীক্ষা দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ১০ জন বলেন, প্রশ্নপত্রের মান সন্তোষজনক। বাকি ১০ জন পরীক্ষার তৃতীয় পালায় অংশ নিয়েছেন। তাঁদের সবার দাবি, প্রশ্ন কঠিন হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানায়, এ বছর মোট ৯টি ইউনিটের জন্য পৃথকভাবে ফরম পূরণ করেছেন ভর্তি-ইচ্ছুক শিক্ষার্থীরা। ৩৬টি বিভাগ ও ৪টি ইনস্টিটিউটের ১ হাজার ৮৮৯টি আসনের বিপরীতে আবেদন জমা পড়েছে ৩ লাখ ৭ হাজার ৯৭৮ শিক্ষার্থীর। সে হিসাবে প্রতিটি আসনের বিপরীতে লড়বেন ১৬৩ জন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন