বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফাতেমার অভিযোগ, টাকা ফেরত পেতে ওই ইউপি সদস্য ও তাঁর ছেলের কাছে অনেক ধরনা দিয়েছেন। শেষ পর্যন্ত তাঁকে রোস্তম আলী বলেছেন টাকা ফেরত নিতে সমাজসেবা কার্যালয়ে যোগাযোগ করতে।

ফাতেমা বলেন, ‘বাবা, মুই তো বুড়া মানুষ। সমাজসেবা অফিসোত মুই মোর নেজের নম্বর দিচনু। তাত টাকা না দিয়া অফিস থাকি টাকা পটাইচে মেম্বারের ছইলের মোবাইলোত। সেই মোবাইল নম্বরটা এক অক (একে–ওকে) কইতে কইতে কষ্ট করি খুঁজি পাচু ওটা হামার মেম্বারের বেটার নম্বর। অ্যালা টাকা চাইলে মেম্বারের বেটা কয় তোরা সমাজসেবা অফিসোত যাও। অটে (সমাজসেবা) থাকি কইলে তার পরে টাকা দেমো। ফির সমাজসেবা অফিসোত গেইলে কয় হামার করার কিছু নাই।’ কান্নাজড়িত কণ্ঠে ফাতেমা বলেন, ‘বুড়া শরীল আর চলে না বাবা। কত আর ঘোরো। মুই কি টাকাটা ফিরি পাবার নও?’

ফাতেমার নাতি সইবুল ইসলাম বলেন, ‘মেম্বারের ছেলে টাকা পাওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। কিন্তু টাকা ফেরত চাইলে রাগ দেখায়। টাকা ফেরত না পেয়ে আমার দাদিমা কখনো কান্নাকাটি করছেন। গত সোমবার সমাজসেবা অফিসে গিয়েও কেঁদেছেন। তবু কারও মন গলেনি।’

বিধবা ভাতার ওই ৯ হাজার টাকা নিজের মুঠোফোন নম্বরে পাওয়ার কথা স্বীকার করে রোস্তম আলী বলেন, ‘ফাতেমার বিধবা ভাতার কার্ডটি আমি নিজে সমাজসেবা অফিসে গিয়ে করে দিয়েছি। সেখানে আমি আমার ফোন নম্বর দিইনি। হঠাৎ আমার নম্বরে টাকা আসার পরে ভাবছিলাম হয়তো ছেলের স্কুলের উপবৃত্তির টাকা এসেছে। যাহোক ফাতেমাকে টাকাটা একটু সময় নিয়ে ফেরত দিতে চেয়েছি। তারপরও তিনি বিভিন্ন জায়গায় অভিযোগ দিয়ে বেড়াচ্ছেন।’

এ বিষয়ে জানতে ইউপি সদস্য আজিজুল হকের মুঠোফোনে আজ যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তা বন্ধ পাওয়া যায়।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা গোলাম ফারুক বলেন, ‘ফাতেমার বিধবা ভাতার টাকা নগদ ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ০১৭৩৭৪৭৪৬৬৪ নম্বরে পাঠানো হয়েছে। ভুল করলে নগদ করেছে। এর সমাধান নগদকেই করতে হবে।’

যোগাযোগ করা হলে নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের রংপুর জেলার ব্যবস্থাপক ইমতিয়াজ বাশরুল বলেন, ‘নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ে একজনের টাকা অন্যজনের কাছে যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই। সমাজসেবা কার্যালয় থেকে যেভাবে ভাতাভোগীদের ডেটাবেইস করে মোবাইল নম্বর দেওয়া হয়েছে, অটোমেটিক সেই নম্বরে টাকা চলে গেছে। যদি একজনের টাকা অন্যজনের মোবাইল নম্বরে গিয়ে থাকে, তাহলে সমাজসেবা অফিসের ভুলের কারণেই গেছে। এর দায় সমাজসেবা অফিসকেই নিতে হবে।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন