default-image

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল ভাড়া না দেওয়ায় এক ব্যক্তিকে বাসা থেকে মারধর করে বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। পরে র‌্যাবের হস্তক্ষেপে ওই ভাড়াটিয়াকে পরিবারসহ ঘরে তুলে দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবারের এ ঘটনা উপজেলার পশ্চিম শ্রীমঙ্গল এলাকার। ভাড়াটিয়া পরিবারটির অভিভাবকের নাম মো. নুরুল হক। তিনি পেশায় সিএনজি অটোরিকশাচালক। বৃহস্পতিবার রাতে পরিবারটিকে ঘরে তুলে দেয় র‌্যাব।

নুরুল হক প্রথম আলোকে বলেন, তিনি অনেক দিন ধরে পশ্চিম শ্রীমঙ্গল এলাকার এই বাসায় আছেন। চলমান করোনা পরিস্থিতিরি কারণে তিনি গাড়ি চালাতে পারছেন না। ফলে এক মাসের বাড়ি ভাড়া দিতে পারেননি। এ কারণে তাঁর ৫ সদস্যের পরিবারকে বাড়ি থেকে বের হয়ে যেতে বাধ্য করেন বাড়ির মালিক বাচ্চু মিয়া।

বাড়ি থেকে বের করে দেওয়ায় ভাড়াটিয়া নুরুল হক পরিবার নিয়ে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন। উপায়ান্তর না থেকে একবার থানাও যান। কিন্তু তাঁকে পরে আসতে বলে বিদায় করে দেয় পুলিশ। পরে তিনি শ্রীমঙ্গল র‌্যাব-৯ ক্যাম্পে যান। র‌্যাবের ক্যাম্প কমান্ডার আনোয়ার হোসেন পরিবারটিকে নিয়ে ওই বাড়িতে যান। মালিকের সঙ্গে কথা বলে তাদের ঘরে তুলে দিয়ে আসেন।

র‌্যাব কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন প্রথম আলোকে বলেন, 'নুরুল হক রাস্তায় ঘুরে ঘুরে আমাদের আজ (শুক্রবার) বিকেল থেকে ক্যাম্পের সামনে এসে দাঁড়িয়ে ছিলেন। আমি তাঁর কথা শুনে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ভানুলাল রায়কে নিয়ে বাড়ির মালিক বাচ্চু মিয়ার সাথে কথা বলি। তিনি আমাদের কথা শুনে পূনরায় ভাড়াটিয়া নুরুলকে বাড়িতে থাকতে দিয়েছেন। বাড়িওয়ালা আমাদের বলেছেন, করোনা পরিস্থিতি চলাকালে আর তিনি ভাড়াটিয়াকে বাড়ি থেকে বের করে দেবেন না।'

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0