default-image

ভিক্ষাবৃত্তি না ছাড়ার কারণে কেছাতুল্লাহ সরদার (৭৫) নামের এক বৃদ্ধকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তাঁর ছেলে ও নাতির বিরুদ্ধে। গতকাল মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে নাটোরের নলডাঙ্গা উপজেলার ভট্টপাড়া গ্রামের উত্তরপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

ভট্টপাড়া গ্রামের উত্তরপাড়ার কয়েকজন বলেন, কেছাতুল্লাহ দীর্ঘদিন ধরে ভিক্ষা করে আসছিলেন। তাঁর ছেলেরা আর্থিকভাবে সচ্ছল হয়ে উঠেছেন। তাঁরা বাবাকে ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়ার অনুরোধ করেন। কিন্তু তিনি ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়তে চান না। গতকাল বেলা দুইটার দিকে এ নিয়ে ছেলে জামরুল ইসলাম ও নাতি ইমরান আলীর সঙ্গে তাঁর কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে তাঁকে মারধর করা হয়। পরে রাত আটটার দিকে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। গ্রামবাসীর কাছে ঘটনার কথা শুনে পুলিশ বৃদ্ধের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে যায়। আজ বুধবার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নাটোর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হবে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি মো. আবদুল হান্নান মণ্ডলের ভাষ্য, ভিক্ষাবৃত্তি ছাড়ার জন্য কেছাতুল্লাহ সরদারের সঙ্গে তাঁর পরিবারের সদস্যদের প্রায়ই ঝগড়া হতো। মারপিটের ঘটনাও ঘটত। গতকাল দুপুরেও ছেলে ও নাতিদের সঙ্গে তাঁর ঝগড়া হয়েছে বলে তিনি শুনেছেন।

এ ব্যাপারে নলডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম মৃধা আজ সকালে বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হত্যার অভিযোগ ওঠায় লাশ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়া গেলে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। তখন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন