বিজ্ঞাপন

ছোট বিঘাই ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হোসনেয়ারা বেগম, আসলাম মৃধা, মো. বাচ্চু, মো. ফারুক হাওলাদার, মো. জালাল খান জানান, তাঁদের ইউনিয়নের তালিকাভুক্ত জেলের সংখ্যা ৪৫০ জন। এই জেলেদের জন্য দুই মাসের ভিজিএফের ৮০ কেজি করে মোট ৩৬ টন চাল বরাদ্দ হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার স্থানীয় ভুতু মিয়া বাজারে বসে চাল বিতরণ শুরু হলে বরাদ্দের চেয়ে চাল কম আনা হয়েছে বলে ইউপি সদস্যদের সন্দেহ হয়। এ নিয়ে চেয়ারম্যানের সঙ্গে ইউপি সদস্যদের হট্টগোল শুরু হলে চাল বিতরণে জটিলতা দেখা দেয়। বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) জানানো হয়। ইউএনও ঘটনাস্থলে গিয়ে ১৩ বস্তা চাল (৬৫০ কেজি) চাল কম পান।

ইউএনও লতিফা জান্নাতি মুঠোফোনে বলেন, অভিযোগ পেয়ে সরেজমিনে গিয়ে ১৩ বস্তা চাল কম পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে বিঘাই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন বলেন, এই চাল পটুয়াখালীর খাদ্যগুদাম থেকে উত্তোলন করে ট্রলারে করে আনতে হয়েছে। তবে ট্রলারে ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত হওয়ায় ১৩ বস্তা চাল গুদাম থেকে আনা যায়নি।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন