ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, শহরের ফেরিঘাট এলাকার আবদুল জব্বার শেখের দোতলা বাসভবনের ছাদে রান্নাঘর ছিল। রান্নাঘরে ভিমরুল বাসা বাঁধে। ভিমরুলের আতঙ্কে দুশ্চিন্তায় ছিল ওই পরিবারটি। গতকাল রাতে জব্বার শেখের স্ত্রী হাসিনা বেগম ভিমরুলের চাকে আগুন লাগিয়ে দেন। মুহূর্তেই রান্নাঘরে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয় বাসিন্দারা আগুন জ্বলতে দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। এলাকাবাসী পানি দিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চালান।

খবর পেয়ে নলছিটি ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় অল্প সময়ের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। ততক্ষণে রান্নাঘরটি পুড়ে যায়। আগুন লাগার খবর পেয়ে ছুটে যান স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ উৎসুক জনতা।

পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর বীর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ভিমরুলের চাকে আগুন দিতে গিয়েই রান্নাঘরে আগুন লেগে যায়। আগুনে শুধু রান্নাঘরটি পুড়েছে, এ ছাড়া আর তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

নলছিটি ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার (ভারপ্রাপ্ত) মো. মাসুদ বলেন, খবর পাওয়ার পরপরই ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। সময়মতো আগুনের খবর পাওয়ায় পাশের ঘরগুলো রক্ষা করা গেছে। রান্নাঘরে জ্বালানি কাঠ থাকায় সেগুলো থেকেই আগুন ধরে যায়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন