default-image

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পৌরসভা নির্বাচনে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী থাকায় কিছুটা বেসামাল অবস্থায় আছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী। এই পরিস্থিতির সুবিধা নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্র জানায়, ৩০ জানুয়ারি তৃতীয় ধাপে এই পৌরসভায় নির্বাচন। মেয়র পদে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুদুল হক, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী পৌর বিএনপির সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন এবং আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আবদুস সাত্তার।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী মাসুদুল হকের আগে পরপর দুবার দলীয় মনোনয়ন পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি বিগত দিনে তাঁর উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের চিত্র তুলে ধরে ভোটারদের কাছে ভোট চাচ্ছেন। তবে তাঁকে এবার বিএনপি প্রার্থীর বাইরেও নিজ দলের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর সঙ্গে লড়াই করতে হচ্ছে। দলের অনেক নেতা–কর্মী–সমর্থক ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন।

বিজ্ঞাপন

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী থাকার বিষয়টিকে কাজে লাগাতে চান বিএনপি প্রার্থী। যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া থেকে শুরু করে সার্বক্ষণিক নির্বাচনী কার্যক্রম তদারকি করছেন। জাহাঙ্গীর হোসেনের পক্ষে বিএনপির উপজেলা ও পৌর কমিটির নেতা-কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করছেন।

এ বিষয়ে বিএনপির প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, তাঁর নেতা–কর্মীদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে। বিভিন্ন এলাকায় তাঁদের প্রচারনায় বাধা দেওয়া হচ্ছে। নির্বাচনে কারচুপির আশঙ্কা করছেন তিনি। একই আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী আবদুস সাত্তার জানান, তাঁর অনুসারীদের নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ না নেওয়ার জন্য হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে আওয়ামী লীগেরপ্রার্থী মাসুদুল হক মাসুদ জানান, তিনি টানা দুবার মেয়র হিসেবে ভূঞাপুরে ব্যাপক উন্নয়ন করেছেন। তাই তাঁর পক্ষে ভোটারদের ব্যাপক সমর্থন রয়েছে। নিশ্চিত পরাজয় জেনে অপর দুই প্রার্থী তাঁর বিরুদ্ধে হুমকি দেওয়ার মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন