default-image

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের ভোটের আর তিন দিন বাকি। এর মধ্যে আজ বুধবার আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী আবুল বাশার চোকদারকে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার করার ঘোষণা দিয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ। পাশাপাশি তাঁকে স্থায়ীভাবে দল থেকে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে সুপারিশপত্র পাঠানো হয়েছে।

আজ বেলা ১১টার দিকে ভেদরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ ঘোষণা দেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে। আবুল বাশার চোকদার ভেদরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক। পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী (জগ প্রতীক) হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ সূত্র জানায়, ভেদরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মান্নান ব্যাপারীসহ সাত নেতা। কিন্তু মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র ও উপজেলা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুল মান্নান হাওলাদার। দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক আবুল বাশার চোকদার, যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক নেয়ামত সিকদার ও উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মান্নান ব্যাপারীর স্ত্রী মহিলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক চিনু বেগম।

আবুল বাশার চোকদারকে স্থায়ীভাবে দল থেকে বহিষ্কারের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাছে সুপারিশপত্র পাঠানো হয়েছে।

তবে পরে চিনু বেগম ও নেয়ামত সিকদার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী আবুল বাশার চোকদারকে সমর্থন করেন। তাঁদের সঙ্গে যোগ দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মান্নান ব্যাপারীও। তাঁরা আবুল বাশার চোকদারের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণাসহ নানা ধরনের কার্যক্রম চালাতে থাকেন। এ পরিস্থিতিতে দলের ওই তিন নেতাকে দলের পক্ষ থেকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালাতে চাপ দেওয়া হয়। এরপরও তাঁরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কার্যক্রম চালাচ্ছেন।

দীর্ঘদিন থেকে দলীয় মনোনয়ন চেয়ে আসছি। কিন্তু দল আমার কাজের কোনো মূল্যায়ন করছে না। নেতা-কর্মীদের চাপে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা আমার সঙ্গে রয়েছেন। পদে না থেকেও আওয়ামী লীগ করা যাবে।
আবুল বাশার চোকদার, ভেদরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী
বিজ্ঞাপন

আজ ভেদরগঞ্জ উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামী লীগ যৌথভাবে সংবাদ সম্মেলন করে। সেখানে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে আবুল বাশারকে বহিষ্কারের ঘোষণা দেন। এ সময় আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবদুল মান্নান হাওলাদার সেখানে বক্তব্য দেন।

জানতে চাইলে দলীয় পদ থেকে বহিষ্কার হওয়া স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল বাশার চোকদার প্রথম আলোকে বলেন, ‘দীর্ঘদিন থেকে দলীয় মনোনয়ন চেয়ে আসছি। কিন্তু দল আমার কাজের কোনো মূল্যায়ন করছে না। নেতা-কর্মীদের চাপে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা আমার সঙ্গে রয়েছেন। পদে না থেকেও আওয়ামী লীগ করা যাবে।’

আবুল বাশার বিএনপি-জামায়াতের প্ররোচনায় আমার বিরুদ্ধে নির্বাচন করে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের পাশাপাশি অঙ্গীকারও ভেঙেছেন। তাঁকে বহিষ্কারের মধ্য দিয়ে নির্বাচনের পরিবেশ ভালো হলো।
আবদুল মান্নান হাওলাদার, ভেদরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী

এদিকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবদুল মান্নান হাওলাদার বলেন, ‘মনোনয়ন চাওয়ার জন্য দলের কাছে আবেদন করতে হয়েছিল। সেখানে মনোনয়ন না পেলেও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার অঙ্গীকার করতে হয়েছে। আবুল বাশার বিএনপি-জামায়াতের প্ররোচনায় আমার বিরুদ্ধে নির্বাচন করে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের পাশাপাশি অঙ্গীকারও ভেঙেছেন। তাঁকে বহিষ্কারের মধ্য দিয়ে নির্বাচনের পরিবেশ ভালো হলো।’

শরীয়তপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অনল কুমার দে বলেন, ‘দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া নেতাদের অনুরোধ করা হয়েছিল দলের শৃঙ্খলা বজায় রাখতে। কিন্তু ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী আবুল বাশার আমাদের আহ্বানে সাড়া দেননি। তাই তাঁকে বহিষ্কার করা হয়েছে। চূড়ান্ত বহিষ্কারের জন্য দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের কাছে সুপারিশ করা হয়েছে।’

তৃতীয় ধাপে ৩০ জানুয়ারি ভেদরগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের ভোট গ্রহণ করা হবে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন