default-image

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ পৌরসভায় ‘অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন’ আয়োজন করায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক বি এম মোস্তাফিজুর রহমান। আজ ভেদরগঞ্জ পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের এম এ রেজা কলেজ কেন্দ্রে বিকেল সাড়ে তিনটার দিকে তিনি সাংবাদিকদের কাছে নির্বাচন নিয়ে স্বস্তি প্রকাশ করেন।

মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ১২ বছর পর মানুষ বাঁধাহীনভাবে ভোট দিতে পেরেছেন। মানুষের ভেতর উচ্ছ্বাস ছিল। সুষ্ঠু নির্বাচন করার জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও নির্বাচনকাজে যুক্ত সবাই নিরপেক্ষ ভূমিকা পালন করেছেন। তাঁদের এমন আচরণে জনগণের সঙ্গে তিনিও আপ্লুত। ভোটাররা স্বতঃস্ফূর্তভাবে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিয়েছেন। জনসাধারণ যেভাবে ভোট দিয়েছেন, তাতে তাঁর বিজয় সুনিশ্চিত।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান মেয়র আবদুল মান্নান হাওলাদার। আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হিসেবে স্বতন্ত্র নির্বাচন করছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক আবুল বাশার চোকদার। তাঁরা দুজনও নির্বাচন নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

ভেতরগঞ্জ পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে ২৫ জন সাধারণ কাউন্সিলর ও ১০ জন সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এখানে মোট ভোটার ৮ হাজার ১৩৫ জন। ৯টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ হয়েছে।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভির আল নাসিফ প্রথম আলোকে বলেন, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের জন্য প্রশাসন তৎপর ছিল। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বজায় রাখতে পুলিশ, র‌্যাবের পাশাপাশি ছিল বিজিবি। আর প্রতি কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন