বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মালিকপক্ষের ভাষ্য, জুতার সবচেয়ে বড় মৌসুম রোজার ঈদ। এরই মধ্যে কারখানায় ব্যস্ততা শুরু হয়ে গেছে। প্রস্তুতি হিসেবে তারাও প্রচুর কাঁচামাল মজুত করেছিল। গতকাল রাত পৌনে ১১টার দিকে হঠাৎ বিস্ফোরণের শব্দ পাওয়া যায়। এরপর কারখানার এক পাশে আগুনের শিখা দেখা যায়। বুঝে ওঠার আগেই আগুন পুরো কারখানায় ছড়িয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট এসে এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যান পৌর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ আলী। তিনি বলেন, কারখানাটির মালিক ছাত্তার মিয়া তাঁকে জানিয়েছেন, ঈদের প্রস্তুতি হিসেবে গত বৃহস্পতিবার কারখানায় ২৮ লাখ টাকার কাঁচামাল মজুত করেছিলেন। আগুনে সবই গেছে।

ভৈরব বাজার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অফিসের তথ্য কর্মকর্তা মো. মামুন বলেন, প্রাথমিকভাবে তাঁদের ধারণা, কারখানার একটি মোটর বিস্ফোরণ থেকে আগুনের সূত্রপাত।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন