default-image

শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় ভোগাই নদ থেকে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে বালু তোলার অভিযোগে আটটি শ্যালো মেশিন ধ্বংস করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাহ্ফুজুল আলম পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে এসব শ্যালো মেশিন ধ্বংস করা হয়।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, ভোগাই নদের নির্ধারিত কয়েকটি স্থান থেকে বালু তোলায় সরকারের অনুমোদন রয়েছে। কিন্তু সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে রামচন্দ্রকুড়া ইউনিয়নের তন্তর ও হাতিপাগার এলাকায় কিছু বালু ব্যবসায়ী শ্যালো মেশিনের মাধ্যমে অবৈধভাবে বালু তুলে আসছিলেন। এতে করে তন্তর ও হাতিপাগার গ্রামের ভোগাই নদ–সংলগ্ন এলাকাবাসীর কৃষিজমি, বাড়িঘর ভাঙনের কবলে পড়েছে। ভুক্তভোগীরা একাধিকবার বালু তোলা বন্ধের দাবি জানালেও কাজ হচ্ছিল না।

বিষয়টি জানতে পেরে ইউএনওর নেতৃত্বে মঙ্গলবার দুপুর থেকে বিকেলে পর্যন্ত পুলিশ, আনসার ব্যাটালিয়ান বাহিনীর সদস্যদের নিয়ে যৌথ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তন্তর ও হাতিপাগার এলাকায় ভোগাই নদে থাকা আটটি শ্যালো মেশিন ধ্বংস করা হয়। অভিযানের খবর পেয়ে বালু উত্তোলনে জড়িত ব্যক্তিরা ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত সটকে পড়েন।

এ বিষয়ে ইউএনও মাহ্ফুজুল আলম প্রথম আলোকে বলেন, অভিযানের সময় বালু উত্তোলনে জড়িত কাউকে পাওয়া যায়নি। তবে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে নিয়মিত অভিযান চলবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0