বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী (স্বতন্ত্র) চেয়ারম্যান প্রার্থী সরোয়ার মাহমুদের ছেলে ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান গতকাল মঙ্গলবার রাতে রহমতপুর ইউনিয়নের রামপট্টি এলাকায় এই ভোজের আয়োজন করেছিলেন। রাত ১১টার দিকে ওই খাবার পরিবেশনের কথা ছিল। এর আগেই সেখানে হাজির হন সহকারী কর্মকর্তা (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মিজানুর রহমান। সেখানে গিয়ে তিনি রান্না করা এসব খাবার জব্দ করেন।

রামপট্টি এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জানান, মঙ্গলবার রাতে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী সরোয়ার মাহমুদের রামপট্টি এলাকায় নির্বাচনী সভা ছিল। সভার পরে ভোজের আয়োজন করা হয়। ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান ভোটারদের খাওয়ানোর জন্য এই আয়োজন করেন। রান্নার শেষ পর্যায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখানে গিয়ে উপস্থিত হন। তখন চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছেলে ব্যবসায়ী মাহবুবুরসহ কয়েক শ লোক পালিয়ে যান। পরে ভোজের আয়োজন বন্ধ করে দেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি রান্না করা খাবার জব্দ করে তা বিভিন্ন এতিমখানায় বিতরণ করেন।

ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান জানান, তৃতীয় ধাপে ২৮ নভেম্বর রহমতপুর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন হবে। তাঁর বাবা সরোয়ার মাহমুদ স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনে তাঁর বাবার অনেক কর্মী-সমর্থক রয়েছেন। তাঁরা বাবার জন্য খাটছেন। প্রচারণা চালাচ্ছেন। রাতে খুব বেশি হলে এক–দেড় শ কর্মী-সমর্থকের খাবারের আয়োজন করা হয়েছিল। প্রতিদ্বন্দ্বী এক প্রার্থী বাবার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে বিষয়টি ভিন্নভাবে প্রচার করেছেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিজানুর রহমান জানান, নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে খাবার জব্দ করা হয়েছে। পরে খাবারগুলো চারটি এতিমখানায় বিতরণ করা হয়।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন