বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই কেন্দ্রের স্থানীয় দুজন বলেন, আমিনুল ইসলাম কুসুম্বী ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থীর নৌকা প্রতীকের পক্ষে প্রচারণা করেছেন। সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছে আমিনুল জোরপূর্বক ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়েছেন। এমন ঘটনা ঘটলেও ওই ভোটকেন্দ্রের ৮ নম্বর বুথে কেউ বাধা দেয়নি। এ ঘটনার পর আমিনুল ইসলামকে ভোটকেন্দ্রের আশপাশে দেখা যায়নি।

জানতে চাইলে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জুলফিকার আলী অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তাঁর কোনো কর্মী এ ধরনের ঘটনা ঘটাননি। তাঁর কর্মীর নামে মিথ্যা অভিযোগ তোলা হয়েছে।

কেন্দ্রটির প্রিসাইডিং কর্মকর্তার দায়িত্বে ছিলেন উপজেলার রহিমা নওশের আলী অনার্স কলেজের প্রভাষক রেজাউল করিম। তিনি এই ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। প্রিসাইডিং কর্মকর্তা বলেন, আমিনুল ইসলামের বাড়ি কোথায়, তা তাঁরা জানেন না। তাঁর কোনো পরিচয়ও তাঁরা জানেন না। হঠাৎ ওই যুবক তাঁদের সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তার হাতে থাকা ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেন। এ সময় ওই সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছে ছিল চেয়ারম্যান পদের অব্যবহৃত ১০টি ব্যালট। ওই যুবক ভোটকেন্দ্র থেকে চলে যাওয়ার পর সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তা ঘটনাটি তাঁকে জানিয়েছেন। ঘটনাটি তিনি তাৎক্ষণিক নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অবহিত করেছেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন