মক্তব থেকে ফেরার পথে ধর্ষণের শিকার, হাসপাতালে ভর্তি ১১ বছরের শিশু

ধর্ষণ
প্রতীকী ছবি

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে মক্তবপড়ুয়া ১১ বছরের এক মেয়েশিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। আজ সোমবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার একটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে স্থানীয় একটি মক্তবের দ্বিতীয় শ্রেণিতে পড়ে। ঘটনার সময় শিশুটি মক্তব থেকে বাড়ি ফিরছিল।

শিশুটির মামা মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, আজ সকালে তাঁর ভাগনি গ্রামের মসজিদ থেকে বাড়ি ফেরার পথে প্রতিবেশী আক্কাস মিয়া (২৮) তাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে একটি বাঁশঝাড়ের কাছে নিয়ে যান। সেখানে তাকে ধর্ষণ করেন। বাড়িতে ফেরার পর মায়ের চোখে তার অস্বাভাবিক আচরণ ধরা পড়ে। এ সময় জানতে চাইলে সে বিষয়টি জানায় এবং এর আগেও আক্কাস তাকে জোর করে ধরে নিয়ে কয়েকবার ‘খারাপ কাজ’ করেছে। খবর পেয়ে গ্রামের লোকজন আক্কাস মিয়ার বাড়িতে গেলে তিনি পালিয়ে যান বলে জানান শিশুটির মামা। শিশুটি বর্তমানে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি বলে জানান তিনি।

প্রতিবেশী আক্কাস মিয়া (২৮) শিশুটিকে ভয়ভীতি দেখিয়ে একটি বাঁশঝাড়ের কাছে নিয়ে ধর্ষণ করেন। বাড়িতে ফেরার পর মায়ের চোখে তার অস্বাভাবিক আচরণ ধরা পড়ে।

শ্রীমঙ্গল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুছ ছালেক প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা ঘটনাটি শুনেছেন। মেয়েটির পরিবারের সঙ্গে তাঁদের কথা হয়েছে। মেয়েটিকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত আক্কাস পলাতক। তাঁকে ধরতে অভিযান চলমান। এই বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

জানতে চাইলে মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক বিনেন্দু ভৌমিক বলেন, সকালে শিশুটি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। শিশুটি খুব অসুস্থ। ধর্ষণের শিকার হয়েছে কি না, সেই বিষয় গাইনি বিভাগের চিকিৎসক দেখছেন। সব পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রতিবেদন এলে জানা যাবে সে ধর্ষিত হয়েছে কি না। আপাতত তার চিকিৎসা চলছে।