মক ভোটিংয়ে সাড়া মেলেনি দুর্গম চরে

সারিয়াকান্দি উপজেলার চালুয়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে সোমবার মক ভোট নেওয়া হয়
ছবি: প্রথম আলো

বগুড়ার সারিয়াকান্দি উপজেলায় যমুনা নদীর দুর্গম চরবেষ্টিত চালুয়াবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন উপলক্ষে দুই দিন আগে মক ভোটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ১০টা থেকে ১০টি কেন্দ্রে একযোগে এ মক ভোটিং কার্যক্রমের আয়োজন করে নির্বাচন কমিশন।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) নেওয়া এ পরীক্ষামূলক ভোটে তেমন সাড়া মেলেনি যমুনার দুর্গম চরাঞ্চলের ভোটারদের। সকাল থেকে চরের বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, ভোটারের তেমন উপস্থিতি নেই। তাঁদের মধ্যে কোনো আগ্রহও লক্ষ করা যায়নি। ইউনিয়নে মোট ভোটার ৯ হাজার ৮১৫ জন। দিন শেষে মক ভোট দিয়েছেন ৬৩২ জন, যা মোট ভোটারের মাত্র ৬ শতাংশ।

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, চর ফাজিলপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে ভোটারের সংখ্যা ৫৬৬। কেন্দ্রে এসে মক ভোট দিয়েছেন ১৩ জন। বহুলাডাঙ্গা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে ৮৫৬ ভোটারের মধ্যে মক ভোট দিয়েছেন ২৭ জন। আউচারপাড়া নিম্নমাধ্যমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে মোট ভোটার ৯৯৮।

মক ভোট দিয়েছেন ১৪ জন। শিমুলতাইড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে ভোটারসংখ্যা ১ হাজার ৩৫৪। মক ভোট পড়েছে ১৪৬টি। বিরামের পাঁচগাছি ভোটকেন্দ্রে ভোটারসংখ্যা ২ হাজার ৭৫৪ জন। মক ভোট দিয়েছেন ১৬৩ জন। উত্তর হাটবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে ভোটারসংখ্যা ৫৫০। মক ভোট পড়েছে মাত্র ১২টি।

চর দলিকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৫৩৯ জন ভোটারের মধ্যে মক ভোট দিয়েছেন ৬১ জন। চর চালুয়াবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে ভোটার সংখ্যা ৬৮৫। মক ভোট পড়েছে ৪৩টি। মানিকদাইড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়কেন্দ্রে ৮৭০ জন ভোটারের মধ্যে মক ভোট দিয়েছেন ৯৩ জন। মানিকদাইড় ঘাটে অস্থায়ী কেন্দ্রে ভোটারসংখ্যা ৬৪৩। এই কেন্দ্রে মক ভোট পড়েছে ৭০টি।

মক ভোট দিতে আসা কয়েকজন ভোটার বলেন, ব্যালটের চেয়ে ইভিএমে ভোট দেওয়া তাঁদের কাছে জটিল মনে হয়েছিল। কিন্তু বাস্তবে ভোট দিতে এসে সহজ মনে হয়েছে প্রক্রিয়াটি।

উপজেলা নির্বাচন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চালুয়াবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী লড়ছেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগের (নৌকা প্রতীক) তাজুল ইসলাম বাদশা, আওয়ামী লীগের ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী (আনারস প্রতীক) ও বর্তমান চেয়ারম্যান শওকত আলী, স্বতন্ত্র প্রার্থী (ঘোড়া প্রতীক) জিয়াউর রহমান এবং আকবর আলী (মোটরসাইকেল)। এ ছাড়া ৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে সদস্যপদে ২৫ জন এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ডে নারী সদস্যপদে ১০ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সারিয়াকান্দি উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন বলেন, মক ভোটিংয়ে ইভিএমের প্রতি সন্তুষ্টির কথা জানিয়েছেন ভোটাররা। দুর্গম চরে প্রথমবারের মতো ১০টি কেন্দ্রে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

মক ভোটিংয়ে ভোটারের উপস্থিতি কম হলেও ভোটের দিন উপস্থিতি বাড়বে বলে মনে করেন সাখাওয়াত হোসেন।