default-image

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় মো. হানজালা (৫) নামের এক শিশুকে হত্যার মামলায় বাবা, চাচা ও সৎমাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শনিবার সকালে তাঁদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। গতকাল শুক্রবার রাতে মো. হানজালার নানি হাসি বেগম বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে হত্যা মামলাটি করেন।

গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন মো. হানজালার বাবা মঠবাড়িয়া পৌরসভার দক্ষিণ মিঠাখালী গ্রামের নূর নবী মোল্লা (৩৫), নূর নবীর দ্বিতীয় স্ত্রী শাহানা বেগম (৩২) ও চাচা মো. বেল্লাল (৩৫)।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, এক বছর আগে নূর নবী মোল্লার সঙ্গে প্রথম স্ত্রী মা ফাতেমা বেগমের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। এরপর নূর নবী মোল্লা শাহানা বেগম নামের এক নারীকে বিয়ে করেন। বাবা-মায়ের বিচ্ছেদের পর হানজালা নানি হাসি বেগমের কাছে থাকত। গত ২৯ মার্চ হানজালাকে তার বাবা নানা বাড়ি থেকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যান। গত ১৪ এপ্রিল রাতে হানজালাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বাবা, সৎমাসহ আসামিরা মারধর করেন। পরদিন হানজালাকে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই দিন রাতে হানজালা চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।

বিজ্ঞাপন

এরপর শিশুটির লাশ অ্যাম্বুলেন্সে করে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় এনে সেখানে রেখে বাবা নূর নবী মোল্লা ও সৎমা শাহানা বেগম পালিয়ে যান। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পিরোজপুর সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় পুলিশ অপমৃত্যু মামলা করে। গতকাল শুক্রবার রাতে হানজালার নানি হাসি বেগম বাদী হয়ে সৎমা শাহানা বেগমকে প্রধান আসামি করে পাঁচজনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। এরপর পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামলার এজাহারভুক্ত তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করে।

মঠবাড়িয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ জেড এম মাসুদুজ্জামান বলেন, আজ শনিবার সকালে মামলার তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন