বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

চিত্রশিল্পী উৎপল দে বলেন, ‘দেশে দীর্ঘ সময় ধরে করোনা মহামারি চলছে। এরই মধ্যে শান্তির বার্তা নিয়ে এসেছে মা দুর্গা। তাই এ বছর আমাদের বাড়ির পাশের পূজামণ্ডপে করোনায় সম্মুখযোদ্ধাদের কর্মকাণ্ড নিয়ে কিছু ককশিটের কাজ করেছি।’

আজ মঙ্গলবার দুর্গোৎসবের মহাসপ্তমী। নগরের মণ্ডপে মণ্ডপে বাজছে ঢাক, কাঁসর ঘণ্টা ও শাঁখের ধ্বনি। এ বছর রংপুর জেলায় সেজে উঠেছে ৯৫৬টি পূজামণ্ডপ। এর মধ্যে নগরে ১৫৩টি, সদর উপজেলায় ১০২, বদরগঞ্জে ১৩২, মিঠাপুকুরে ১৪০, গঙ্গাচড়ায় ১০৮, পীরগঞ্জে ৯৭, কাউনিয়ায় ৬৫, তারাগঞ্জে ৬৭, পীরগাছায় ৮৯টি মণ্ডপ রয়েছে।

জেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ধীমান ভট্টাচার্য বলেন, শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পূজা উদ্‌যাপন সম্পন্ন করতে প্রতিটি মণ্ডপে রয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য। বৈরী আবহাওয়ার কথা চিন্তা করে অনেক মণ্ডপে ছাউনির ব্যবস্থা করা হয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সার্বিক দিকনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের জেলা ও মহানগর কমিটির নেতাদের সঙ্গে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পূজা উদ্‌যাপনের বিষয়টি নিয়ে মতবিনিময় সভা করা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন