বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মুঠোফোনে কুলাউড়া থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) সুজন আহমদ প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই ব্যবসায়ী স্বপনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনায় জড়িত দুজনের নাম-ঠিকানা পাওয়া গেছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে আহত ব্যক্তির পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

আহত ব্যবসায়ী স্বপনের চাচাতো ভাই রন্টু দে বলেন, সাড়ে তিন লাখ টাকা, ২৪টি মোবাইল ফোন ও মোবাইলে থাকা ব্যালান্স মিলে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা লুট করে নিয়ে গেছে দুর্বৃত্তরা। তিনি স্বপনকে নিয়ে চিকিৎসায় ব্যস্ত আছেন। তাঁর শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। উন্নত চিকিৎসার জন্য স্বপনকে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেছেন চিকিৎসকেরা। চিকিৎসার পর তাঁরা থানায় গিয়ে লিখিত অভিযোগ দেবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন