default-image

নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকায় মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় দগ্ধ আবদুস সাত্তার (৪০) নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়। নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

ইউএনও নাহিদা বারিক বলেন, মসজিদ বিস্ফোরণের ঘটনায় মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক হান্নান সাউদ, ইমাম আবদুল মালেকসহ ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৭ জন। তাদের অবস্থা গুরুতর বলে জানান তিনি।

তদন্ত কমিটির প্রধান ও তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের ঢাকা অফিসের মহাব্যবস্থাপক (পরিকল্পনা) আবদুল ওয়াহাব তালুকদার বলেন, মসজিদের উত্তর পাশে সড়কের মাটি খুঁড়ে ৬ ছিদ্র পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই ছিদ্র দিয়ে গ্যাস বের হয়ে ভেতরে প্রবেশ করে। মসজিদের বিদ্যুতের লাইন পরিবর্তন করার সময় স্পার্ক থেকে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। মসজিদের উত্তর দিকের ৪ নম্বর কলামের ফাউন্ডেশন তিতাসের পাইপলাইন থেকে ৬ ইঞ্চি বাইরে রাস্তার দিকে করা হয়েছে। ফাউন্ডেশনের কাজ করার সময় ওইখানে তিতাসের পাইপের র‌্যাপিং নষ্ট করা হয়েছে। র‌্যাপিং নষ্টের কারণে গ্যাসের লাইন লিকেজ মাটির সংস্পর্শে এসে সেটিতে ছিদ্র হয়েছে। সেই ছিদ্র থেকে গ্যাস বের হয়েছে। যে ছয়টি লিকেজ পাওয়া গেছে, সেগুলো বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

বিজ্ঞাপন

গত শুক্রবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লা এলাকায় বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিকট শব্দে বিস্ফোরণে অর্ধশতাধিক মুসল্লি দগ্ধ হন। এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, জেলা প্রশাসন, তিতাস গ্যাস, ডিপিডিসি ও নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন পৃথক পাঁচটি তদন্ত কমিটি গঠন করে।

মন্তব্য পড়ুন 0