default-image

নারায়ণগঞ্জে মসজিদে বিস্ফোরণে নিহত মাদারীপুরের আবুল বাসার মোল্লার অসহায় পরিবারটির পাশে দাঁড়িয়েছে সাইফ পাওয়ার গ্রুপ। মঙ্গলবার বিকেলে প্রতিষ্ঠানটির মহাখালী খাজা টাওয়ারের সেলস অফিসে নিহতের স্ত্রী তাজিয়া বেগমের হাতে ২৫ হাজার টাকার একটি চেক তুলে দেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক তরফদার মো. রুহুল আমিন। এ সময় আগামী দুই বছর প্রতি মাসে ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ৭ সেপ্টেম্বর প্রথম আলোর অনলাইনে ‘আব্বায় মাস শেষে টাকা পাঠাইত, এখন পাঠাইবে কে’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত এই প্রতিবেদনটি সাইফ পাওয়ার গ্রুপ কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। তাৎক্ষণিক প্রতিষ্ঠানটির পরিচালনা পর্ষদের সব সদস্য আবুল বাসারের পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়। পরিচালনা পর্ষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অসহায় এই পরিবারটির সাংসারিক খরচ মেটানো এবং তার পাঁচ সন্তানের শিক্ষা কার্যক্রম নির্বিঘ্নে পরিচালনার জন্য আগামী দুই বছর প্রতি মাসে ২৫ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা তাজিয়া বেগমের ব্যক্তিগত ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার সহায়তার অর্থ তুলে দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন সাইফ পাওয়ার গ্রুপের পরিচালক তরফদার মো. রুহুল সাইফ, ই-ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেডের সিইও মেজর (অব.) সিরাজুস সালেকীন, গ্রুপের চিফ ফিন্যান্সিয়াল অফিসার মো. হাসান রেজা, গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর (অ্যাডমিন) মেজর (অব.) ফারুখ আহমেদ খান, সাইফ পাওয়ার ব্যাটারির হেড অব ফিন্যান্স অ্যান্ড অ্যাকাউন্টস মো. হেলাল উদ্দিন শিকদার ও এজিএম নাজমুল করীম।

প্রতিষ্ঠানটির আর্থিক সহায়তা পেয়ে খুশি নিহত আবুল বাসারের স্ত্রী তাজিয়া বেগম। তিনি মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, ‘স্বামী হঠাৎ মারা যাওয়ার পরে ভেবেছি সন্তানদের পড়ালেখা বন্ধ হয়ে যাবে। বড় ছেলের আর অনার্স পড়া হবে না। মানসিকভাবে খুব ভেঙে পড়েছিলাম। কিন্তু সাইফ পাওয়ার গ্রুপের আর্থিক সহযোগিতা আমাকে আলোর পথ দেখিয়েছে।’ এ নিয়ে তিনি প্রথম আলো ও সাইফ পাওয়ার গ্রুপের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

মন্তব্য পড়ুন 0