পুলিশ ও পরিবারের সদস্যরা জানান, স্বপন কয়েক বছর ধরে অটোরিকশা চালান। তিনি শ্বশুরবাড়ি শিবপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামে বসবাস করে আসছিলেন। শনিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে তিনি অটোরিকশা নিয়ে ঘর থেকে বের হন। ভোর সাড়ে চারটার দিকে উপজেলার কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নের মিরারচর এলাকায় সড়কের পাশে স্বপনের মরদেহ পড়ে ছিল। পরে ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

স্বপনের স্ত্রী আনারকলি বেগম বলেন, তাঁর স্বামী প্রায়ই ভোরে গাড়ি নিয়ে বের হন। পেশাগত প্রয়োজনে যাচ্ছেন জানিয়ে শনিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে গাড়ি নিয়ে বের হন। ভোরে জানতে পারেন, সড়কের পাশে তাঁর স্বামীর মরদেহ পড়ে আছে।

ভৈরব থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শাহ আলম বলেন, পুলিশের জরুরি সেবা নম্বর (৯৯৯) থেকে ফোন পেয়ে তাঁরা তথ্যটি জানতে পারেন। পুলিশ গিয়ে স্বপনকে মৃত অবস্থায় পায়। তাঁর গলায় ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে স্বপনের মৃত্যু হয়েছে। ছিনতাইকারীরা অটোরিকশা ছিনতাই করতে গিয়ে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে থাকতে পারে। তবে অটোরিকশাটি সড়কের পাশে ছিল। রিকশাটি বর্তমানে পুলিশি হেফাজতে রয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন