default-image

নেশার টাকা না দিতে চাইলে ছেলের সামনে মাকে মারধর করতেন বাবা। গতকাল শনিবার রাতেও মায়ের সঙ্গে এমন আচরণ করেন বাবা। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ছেলে গতকাল রাতে ঘুমন্ত বাবাকে হত্যা করেছেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। ময়মনসিংহ নগরের কৃষ্টপুর এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে।

নিহত বাবার নাম দুলাল মিয়া ওরফে দুলু (৪৫)। ছেলের নাম জয় (২০)। পুলিশ গতকাল রাতেই জয়কে গ্রেপ্তার করেছে। জয় প্রাথমিকভাবে বাবাকে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত দুলাল মিয়া পুরোনো জিনিসপত্র কুড়িয়ে বিক্রি করতেন। তাঁর স্ত্রী একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন। নিজের রোজগার যথেষ্ট না হওয়ায় দুলাল নেশার টাকার জন্য স্ত্রীকে চাপ দিতেন। টাকা না দিলে তিনি স্ত্রীকে মারধর করতেন। গতকাল রাতে দুলালের স্ত্রী কাজ সেরে বাড়িতে ফিরলে দুলাল নেশার জন্য টাকা চান। টাকা না দেওয়ায় দুলাল স্ত্রীকে ঘরের বাইরে বের করে দেন। পরে জয় বাড়িতে ফিরে দেখতে পান, তাঁর মা ঘরের বাইরে। মাকে নিয়ে তিনি ঘরে যান। রাতে তিনি বাবার সঙ্গে ঘুমান। আর তাঁর মা মেঝেতে ঘুমান। রাতে জয় তাঁর বাবাকে হত্যা করেন। রাতেই ঘটনাটি জানাজানি হলে পুলিশ কৃষ্টপুর এলাকার রেললাইনের কাছ থেকে জয়কে গ্রেপ্তার করে।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ তালুকদার বলেন, মাকে নির্যাতন করায় জয় তাঁর বাবার ওপর ক্ষিপ্ত ছিলেন। এ কারণে তিনি তাঁর বাবাকে হত্যা করেছেন বলে পুলিশকে বলেছেন। জয়কে আজ রোববার আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বিজ্ঞাপন
জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন