মাচা ভরে ছিল করলা, লাউডগায়, সেই খেত কেটে তছনছ

বিজ্ঞাপন
default-image

কলাগাছগুলোয় কেবল মোচা ধরতে শুরু করেছিল। করলা আর লাউয়ের ডগায় ভরেছিল মাচা। কদিন পরই খেত ভরে যেত লাউ, করলা আর কলায়। কিন্তু এর আগেই কারা যেন এসব ফসল কেটে তছনছ করেছে।

এ ঘটনা ঘটেছে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলায়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

তছনছ করা খেতটি বিনোদপুর গ্রামের কৃষক আবদুর রাজ্জাকের। তাঁর ১৩ কাঠা জমির কলাবাগান, লাউ ও করলাখেত বিনষ্ট করেছে দুর্বৃত্তরা। আজ শুক্রবার সকালে মাঠে গিয়ে তিনি এ অবস্থা দেখতে পান।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আবদুর রাজ্জাক বলেন, পৈতৃক সূত্রে পাওয়া ১৩ কাঠা জমিতে তিনি শাকসবজির আবাদ করে থাকেন। আজ সকালে মাঠে গিয়ে তিনি পুরো খেত তছনছ করা অবস্থায় দেখতে পান। তাঁর ১৩ কাঠা জমির ৮ কাঠায় কলাগাছ লাগিয়েছিলেন। বাকি পাঁচ কাঠায় চাষ করেছিলেন লাউ আর করলা। কলাগাছে কেবল মোচা ধরেছিল। লাউ আর করলার মাচা ফুলে ফুলে ভরেছিল। কয়েক দিন পরই খেত লাউ, করলা আর কলায় ভরে যেত। কে বা কারা কেন এভাবে ধ্বংস করল, কিছুই বুঝে উঠতে পারছেন না তিনি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
default-image

আবদুর রাজ্জাক আরও বলেন, দিনমজুরির পাশাপাশি ওই খেত থেকে উপার্জিত অর্থ দিয়ে তাঁর সংসার মোটামুটি চলে যায়। সংসার চালানোর প্রধান অবলম্বন সেই খেতের ফসল বিনষ্ট করায় সর্বস্বান্ত হয়ে পড়েছেন তিনি। কীভাবে এই ক্ষতি পূরণ করবেন, তা নিয়ে চিন্তিত তিনি।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জানতে চাইলে আলমডাঙ্গা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর কবির বলেন, ‘ঘটনাটি তিনি শুনেছেন। তবে কেউ অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন