ড্রিম বাংলাদেশ সংগঠনের সভাপতি মনজুর আলম ওরফে তন্ময় একজন স্কুলশিক্ষক। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, তাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে উপকারভোগী নির্বাচন করেছেন। তাঁদের হাতে একটি করে স্লিপ দেওয়া হয়েছে। যাঁদের সামর্থ্য নেই, এমন লোককে নির্বাচন করা হয়েছে। তাঁরা মাত্র ১০ টাকার বিনিময়ে প্যাকেজটি সংগ্রহ করতে পারবেন।

সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক রাউফুল ইসলাম ওরফে তপু ঢাকার একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজশিক্ষার্থী মিলে ড্রিম বাংলাদেশ গঠন করেছি। সংগঠনটির মাধ্যমে আমরা জনকল্যাণকর কাজ করে যাচ্ছি। সবার সঙ্গে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতে আমাদের এবারের উদ্যোগ ১০ টাকায় ঈদবাজার। অনেকে সাহায্য নিতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন না, লজ্জাবোধ করেন। তাই নামমাত্র মূল্যে এ ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। সংগঠনের সংগৃহীত সদস্যদের চাঁদার টাকা থেকে এ ব্যয় মেটানো হবে।’

এ বিষয়ে সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. শামীম হুসাইন প্রথম আলোকে বলেন, ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। ড্রিম বাংলাদেশ ঈদের কেনাকাটায় ১০ টাকায় ঈদবাজারের প্যাকেজ দেবে। নিঃসন্দেহে ভালো কাজ। এতে অসহায় ও গরিব মানুষেরা উপকৃত হবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন