default-image

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলায় মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায় একজনকে কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে। সোমবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে উপজেলার চৌমুহনী চৌরাস্তা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জখম হওয়া ওই ব্যক্তির নাম ওমর ফারুক (৩৭)। তিনি উপজেলার মধ্যম নাজিরপুর গ্রামের আবদুল গফুরের ছেলে। তাঁকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ওমর ফারুক স্থানীয় সামাজিক সংগঠন যুব কল্যাণ সংঘ ও মৎস্যজীবী সমিতির সহসভাপতি। তিনি সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে কাজ করেন।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওমর ফারুক প্রথম আলোকে বলেন, সম্প্রতি এলাকার কয়েকজন বখাটে যুবক মৎস্যজীবী সমিতির কার্যালয়ের তালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে ইয়াবা সেবন করেন। তিনি বাধা দিলে তাঁরা ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। সোমবার সকালে তিনি সোনাইমুড়ী উপজেলায় তাঁর কর্মস্থলে যাওয়ার পথে চৌমুহনী চৌরাস্তায় জননী বাসস্ট্যান্ডে শাওন, জাহিদসহ চার-পাঁচজন যুবক অতর্কিতে তাঁর ওপর হামলা চালান। হামলাকারীরা তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পুরো শরীরে গুরুতর জখম করেছেন।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকদার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং হাসপাতালে গিয়ে আহত ওই ব্যক্তির সঙ্গে কথা বলে এসেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন