মাদারগঞ্জে বিছানায় মা ও ছেলের লাশ

বিজ্ঞাপন
default-image

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় এক গৃহবধূ ও তাঁর ছেলের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পারিবারিক কলহের জের ধরে তাঁদের ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ বুধবার উপজেলার গুনারীতলা ইউনিয়নের চরগোপালপুর গ্রাম থেকে ওই দুটি লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ ওই গৃহবধূর স্বামীকে আটক করেছে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
ওই গৃহবধূর নাম মুসলিমা আক্তার (৩২) এবং তাঁর ছেলের নাম মো. তাওহীদ (৩)। মুসলিমা গুনারীতলা ইউনিয়নের চরগোপালপুর গ্রামের হারুন অর রশিদের স্ত্রী।

ওই গৃহবধূর নাম মুসলিমা আক্তার (৩২) এবং তাঁর ছেলের নাম মো. তাওহীদ (৩)। মুসলিমা গুনারীতলা ইউনিয়নের চরগোপালপুর গ্রামের হারুন অর রশিদের স্ত্রী।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে চরগোপালপুর গ্রামের হারুন অর রশিদের সঙ্গে তাঁর স্ত্রী মুসলিমা আক্তারের পারিবারিক কলহ চলছিল। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া হতো। গত মঙ্গলবার রাতে পরিবারের অন্য সদস্যরা বিছানার ওপর মুসলিমা ও তাঁর ছেলে তাওহীদের রক্তাক্ত লাশ দেখতে পান। খবর পেয়ে ওই রাতেই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। আজ বুধবার সকালে পুলিশ মা ও ছেলের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে মাদারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম প্রথম আলোকে বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পারিবারিক কলহের জের ধরে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে থাকতে পারে। এ ঘটনায় গৃহবধূর স্বামীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে থানায় আনা হয়েছে। মুসলিমা ও তাঁর ছেলে তাওহীদের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জামালপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন