বিজ্ঞাপন

আমিন শিকদার অভিযোগ করেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমরা দাদন আকনদের সঙ্গে ছিলাম। তাঁরা আমাদের লোকজনের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতেন। তাই এবার ঈদে আমরা তাঁদের সমাজ ছেড়ে দিয়ে অন্য সমাজে নামাজ আদায় করতে যাই। এ নিয়ে তাঁরা আমাদের ওপর হামলা করেছেন। হামলায় আমাদের লোকজনই বেশি আহত হয়েছেন।’

অভিযোগের বিষয়ে দাদন আকন বলেন, ‘আমিন শিকদাররা আমাদের সমাজ ছেড়ে চলে যাচ্ছিল। আমরা তাদের কাছে টাকা পাব। আমাদের সমাজে যেহেতু তারা থাকবে না, তাই আমি আমার পাওনা টাকা চাইছি। আর এই কারণেই তারা আমাদের ওপর হামলা করেছে।’

জানতে চাইলে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিরাজ হোসেন বলেন, ঈদের নামাজ আদায় করাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে। আহত কয়েকজনকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। অনেকেই চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন।

ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা আছে। দুই পক্ষের কেউ এখনো থানায় অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ দিলে পুলিশ অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন