মানিকগঞ্জে ঘরের ভেতর ঝুলছিল গৃহবধূর অর্ধগলিত লাশ

লাশ
প্রতীকী ছবি

মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার হিজুলী গ্রাম থেকে গতকাল রোববার রাতে এক গৃহবধূর ঝুলন্ত অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। দাম্পত্য কলহের জেরে ওই গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছেন বলে পুলিশের ধারণা। গৃহবধূর নাম হাচনা বেগম (৫৫)। তিনি ঘিওর উপজেলার কুশন্ডা গ্রামের আবদুল বারেক মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বারেক মিয়ার দ্বিতীয় স্ত্রী হাচনা। কয়েক বছর আগে মানিকগঞ্জ পৌর এলাকার হিজুলী গ্রামে বাড়ি করেন বারেক মিয়া। সেই বাড়িতেই থাকতেন হাচনা বেগম। বারেক মিয়া থাকেন প্রথম স্ত্রীর সঙ্গে। রোববার সন্ধ্যায় হিজুলীর ওই বাড়ির ঘরের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ পান প্রতিবেশীরা। খবর পেয়ে রাত আটটার দিকে ওই বাড়িতে যায় পুলিশ।

সদর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) দয়াল চন্দ্র সরকার জানান, চার চালা টিনের ঘরের তালাবদ্ধ কক্ষের ভেতর থেকে দুর্গন্ধ পাওয়া যায়। এরপর তালা ভেঙে ঘরের ভেতরে ঢুকে আড়ার সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই নারীর অর্ধগলিত লাশ পাওয়া যায়। পরে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য জেলা সদরের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এসআই দয়াল চন্দ্র সরকার বলেন, স্বামীর সঙ্গে কলহের কারণে দু–তিন দিন আগে ওই নারী আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ধারণা করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ও অধিকতর তদন্তে মৃত্যুর প্রকৃত ধরন সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

মানিকগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আকবর আলী খান বলেন, এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।