পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গতকাল রাতে মানিকগঞ্জ শহর থেকে একটি মোটরসাইকেলে করে রাথুরা গ্রামের বাড়িতে ফিরছিলেন জুয়েল, আশিকুর ও হাসিবুর। রাত সাড়ে ১০টার দিকে কালীগঙ্গা সেতুর ওপর পাটুরিয়াগামী সেলফি পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস পেছন থেকে মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান দুই বন্ধু জুয়েল ও আশিকুর। আহত হাসিবুরকে উদ্ধার করে মুন্নু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে হতাহত ব্যক্তিদের উদ্ধার এবং বাসটি জব্দ করে পুলিশ।

এদিকে দুর্ঘটনার খবরে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন স্থানীয় লোকজন। তাঁরা তরা এলাকায় সেলফি পরিবহনের অপর দুটি বাস ভাঙচুর করেন। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ লাঠিপেটা শুরু করলে উত্তেজিত জনতা সেখান থেকে বানিয়াজুরী বাসস্ট্যান্ড এলাকায় চলে যান। সেখানে ঢাকাগামী সেলফি পরিবহনের একটি বাসে অগ্নিসংযোগ করেন বিক্ষুব্ধরা।

এ ঘটনায় রাত ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত আধা ঘণ্টা মহাসড়কে যান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ থাকে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার চেষ্টা করে। মহাসড়কের এক লেন দিয়ে উভয় দিকের যানবাহন চলাচল শুরু হয়। খবর পেয়ে দিবাগত রাত ১২টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে বাসের আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা। রাত সাড়ে ১২টার দিকে আগুন পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসে।

বাসচাপায় দুই বন্ধুর মৃত্যুর খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন ঘিওর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিয়াজউদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। দুজনের লাশ জেলা সদরের ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন