বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজিবির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে বিজিবি জানতে পারে, কষ্টিপাথরের দুটি মূর্তি পাচারের উদ্দেশ্যে কৃত্তলী গ্রামের ইব্রাহিম মিয়া ও আবদুল কাদেরের বাড়িতে রাখা হয়েছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে গতকাল সন্ধ্যা সাতটার দিকে ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল মোহাম্মদ আসাদুজ্জামানের নেতৃত্বে মান্দার সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু বক্কর সিদ্দিক ও মান্দা থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ফজলে এলাহীর সমন্বয়ে গঠিত টাস্কফোর্স ইব্রাহিম মিয়া ও আবদুল কাদেরের বাড়িতে পৃথক অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় ইব্রাহিম মিয়ার বাড়ির রান্নাঘর থেকে ১১০ কেজির একটি এবং আবদুল কাদেরের বাড়ি থেকে ৫৬ কেজি ওজনের অপর একটি কষ্টিপাথরের মূর্তি উদ্ধার করা হয়।

লে. কর্নেল মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান জানান, মূর্তি দুটি উদ্ধারের পর গতকাল রাতে নওগাঁ জুয়েলার্স সমিতির নেতাদের সহযোগিতায় পরীক্ষা করে কষ্টিপাথরের বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। মূর্তি দুটির আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ৬৬ লাখ টাকা।  
লে. কর্নেল মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান আরও জানান, উদ্ধার মূর্তি দুটি দেশের বাইরে পাচারের উদ্দেশ্যে রাখা হয়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। অভিযান পরিচালনার সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে পাচারকারীরা মূর্তিগুলো ফেলে পালিয়ে যাওয়ায় তাঁদের আটক করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন