বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ট্যুরিস্ট পুলিশ সূত্র জানায়, গত ২৬ ডিসেম্বর মাদারীপুর থেকে ১৭ মামলার আসামি আশিককে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে। ৩০ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকার কেরানীগঞ্জ কারাগার থেকে আশিককে আনা হয় কক্সবাজার কারাগারে। আশিকের বাড়ি কক্সবাজার শহরের বাহারছড়া এলাকায়।

পুলিশ জানায়, ঢাকার যাত্রাবাড়ী থেকে গত ২২ ডিসেম্বর বিকেলে স্বামী ও ৮ মাসের শিশুসন্তানের সঙ্গে কক্সবাজার বেড়াতে যান ওই নারী। সৈকতের বালুচর দিয়ে হেঁটে পানির দিকে নামার সময় তাঁর স্বামীর সঙ্গে সামান্য ধাক্কা লাগে আশিকের। এর জেরে সন্ধ্যায় পর্যটন গলফ মাঠ এলাকা থেকে ওই নারীকে তুলে নিয়ে প্রথমে একটি চায়ের দোকানে এবং পরে কলাতলীর এক হোটেলে নিয়ে আশিকের নেতৃত্বে কয়েকজন তাঁকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করেন।

২৩ ডিসেম্বর রাতে ওই নারীর স্বামী বাদী হয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় আশিক (২৮), মো. বাবু (২৫), ইসরাফিল হুদা (২৮), রিয়াজ উদ্দিন (৩০), অজ্ঞাতনামা আরও তিনজনসহ সাতজনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেন। এখন পর্যন্ত এ মামলায় অভিযুক্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ও র‌্যাব। তাঁদের মধ্যে চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন