বিজ্ঞাপন

নাম প্রকাশ না করার শর্তে ট্রেনের পরিচালক (গার্ড) বলেন, কামরায় যেসব যাত্রী রয়েছেন, তাঁদের অধিকাংশ রেলওয়ে কর্মচারী বা স্বজন। এ কারণে তাঁদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া যায় না। সব পার্সেল ট্রেনেই একই অবস্থা।

সান্তাহার স্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমান বলেন, ‘যাত্রীদের পার্সেল ট্রেনে না ওঠার জন্য জন্য আমরা নিষেধ করছি। কিন্তু বেশির ভাগ যাত্রী রেলসংশ্লিষ্ট হওয়ায় কিছু করা যাচ্ছে না।’ মাদক পরিবহনের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়টি তদারকির জন্য ট্রেনে নিরাপত্তা বাহিনী থাকে। এখন তাঁরা যদি সঠিক দায়িত্ব পালন না করেন, তাহলে আমাদের করার কিছুই থাকে না।’

জেলা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন